কলকাতা : ‘মাই নেম ইজ জান’-এর (My Title is Jaan) সত্তায় মনপ্রাণ সঁপেছেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় (Arpita Chatterjee) ৷ দীর্ঘ কয়েক মাস তিনি ডুবে ছিলেন নিবিড় অনুশীলনে ৷ অবশেষে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ প্রায় উপস্থিত ৷ ১৮ সেপ্টেম্বর প্রথম যবনিকা উঠবে ৷ মঞ্চে অর্পিতা অবতীর্ণ হবেন গওহরজানের ভূমিকায় ৷

অনুশীলন পর্বের বিভিন্ন সময়ের ছবি ও ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন অর্পিতা ৷ সম্প্রতি অনুশীলনপর্বের আরও একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন তিনি ৷ সেখানে দেখা যাচ্ছে, লং স্কার্ট এবং টপের আটপৌরে বেশে মহড়া দিচ্ছেন অর্পিতা ৷ কখনও তিনি গান গাইছেন ৷ কখনও বোল তুলেছেন কত্থকে ৷ আবার কখনও বলছেন সংলাপ ৷ ভিডিয়ো শেয়ার করে অর্পিতা লিখেছেন, ১ ঘণ্টা ৪৫ মিনিটের নাটকে থাকছে ৮ টি ধ্রুপদী সঙ্গীত ৷ কিছু কত্থক নাচ ৷ সবই তাঁর নিজের পরিবেশন ৷ দর্শক ও নেটিজেনদের শুভেচ্ছা প্রার্থনা করেছেন তিনি ৷

অর্পিতা নিজেই জানিয়েছেন তাঁর জীবন জুড়ে এখন শুধুই উনিশ শতকের প্রখ্যাত ধ্রুপদ শিল্পী ও নর্তকী গওহরজান ৷ অবন্তী চক্রবর্তীর পরিচালনায় ‘মাই নেম ইজ জান’ নাটকে তাঁর জীবনকাহিনি তথা জীবনসংগ্রাম ফুটিয়ে তুলবেন অর্পিতা ৷

ভারতবিখ্যাত শিল্পী গওহরজানের সব রেকর্ডের উপর লেখা থাকত ‘মাই নেম ইজ জান’ ৷ সে সময় শুধুমাত্র এই একটা লাইনের জন্যই গ্রামাফোন কোম্পানির রেকর্ডের চাহিদা ছিল আকাশছোঁয়া ৷

শিল্পী হিসেবে এই সাফল্যকে কুর্নিশ জানিয়ে গওহরজানকে বলা হত ‘দ্য গ্রামাফোন গার্ল’ ৷ কার্যত তিনিই ছিলেন দেশের সর্বপ্রথম রেকর্ডিং সুপারস্টার ৷ ১৯০২ খ্রিস্টাব্দ থেকে শুরু করে ১৯২০ অবধি, এই প্রায় দু’ দশক সময় ধরে ১০ টিরও বেশি ভাষায় ৬০০-র বেশি গান রেকর্ড করেছেন তিনি ৷

জীবনভর দর্শক শ্রোতাদের তাঁর শিল্পকলায় বুঁদ করে রাখা গওহরজান প্রয়াত হন ১৯৩০ সালের ১৭ জানুয়ারি ৷ ব্রিটিশ ভারতের মহীশূরে ৷ প্রয়াণের ৯১ বছর পর তাঁর বদলে এ বার মঞ্চে শিল্পীর জীবনগাথা ৷ ‘মাই নেম ইজ জান’-এ অর্পিতার অভিনয় দেখতে উদগ্রীব নাট্যপ্রেমী বাঙালি ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *